বৈদ্যনাথতলা মেলা যশোর

0Shares

মেলার স্থান – পাঁচবাড়িয়া কনেজপুর-কাছারিপাড়া ,বৈদ্যনাথতলা, সদর ,যশোর ।

তারিখ-প্রতি বছর বৈশাখ মাসের শেষ সোমবার

কিংবদন্তী ও মেলার উৎপত্তি – স্থানীয় জনশ্রুতি অনুযায়ী এই মন্দিরের বিগ্রহ পাথরটি আনুমানিক ২০০ থেকে ৩০০ বছর আগে খরস্রোতা স্রোতস্বীনি বুড়ি ভৈরবের পানিতে ভেসে আসে এবং তৎকালীন সময়ে এই কনেজপুর ঘাটে এসে ডুবে যায় ।এলাকার জনৈকা অশীতিপর বৃদ্ধা এক মহিলা স্বপ্নে দেখেন তিনি ছাড়া এই বিগ্রহ পাথরটি অন্য কেউ তুলতে সক্ষম হবেন না । তখন ঠাকুরের অশেষ কৃপায় বৃদ্ধা মহিলা এই ভারি বিগ্রহ পাথরটি তুলে এখানে স্থাপন করেন । দিনটি ছিল সোমবার বলে সপ্তাহে সোমবার পুজা এবং বাৎসরিক মেলা বৈশাখের শেষ সোমবার পালন হয় । মেলাটি বাংলার চিরায়ত লোকসংস্কৃতির অকৃত্রিম প্রতিচ্ছবি । বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িক দেশ , হিন্দু মুসলমান মোরা ভাই ভাই , নাহি কোন ভেদ , তার প্রমাণ পাওয়া যায় এই মেলার দিনে , মোট জনসমাগমে এই দিনে সময়ক্ষেত্রে হিন্দুদের থেকে মুসলিমের সংখ্যা বেশি হয়ে যায় , ধর্মীয় অনুভূতির থেকে গ্রামীণ আনন্দ উৎসবের উপলক্ষ হিসেবে মেলাটি স্থানীয় মানুষের কাছে ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সমাদৃত, ।২০১৯ এ মেলাটি অন্যান্য বছরের তুলনায় কম জৌলুস নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় মূলত বৈরী আবহাওয়া ও নদী খনন জনিত সাময়িক অসুবিধার কারনে ।

যেতে ইচ্ছুক হলে বা যাতায়াত ব্যবস্থা – উপশহর নিউমার্কেট হতে ৩.৫ কি.মি এর মত দুরত্ব । রিক্সা বা ইজিবাইকে আসতে পারেন । ২০১৯ এর হিসেবে ভাড়া ১০০ থেকে ১৫০ টাকার ভিতর রিক্সা বা ইজিবাইক রিজার্ভ হিসেবে । সময় বুঝে বেশি হতে পারে । বাইরের জেলার আগ্রহীদের অবগতির জন্য জানানো হচ্ছে যে এই নিভৃত পল্লীতে রাত্রি যাপনের ব্যবস্থা না থাকায় আপনাকে মেলা শেষে শহরে ফিরে আসতে হবে ।

বিগ্রহ পাথর
বিগ্রহ পাথর
পুজা
ভক্তদের পুজা
নাগরদোলনা
নাগরদোলনা
এই ছবির বটগাছটি ২০০ বছরের পুরাতন
প্রাথমিক বিদ্যালয়
বৈদ্যনাথতলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ
পরিচিত বালকেরা
0Shares

Facebook Comments

error: Content is protected !!