কালোজাদু-পৃষ্ঠা-৭৫+৭৬

0Shares

আকাশ থেকে আসা কোন পাথর বা ধাতব খণ্ড যখন বাতাসের সংস্পর্শে আসে তখন সেটা জ্বলে ওঠে । অনেক সময় পতিত হবার উচ্চতা এবং কোনের উপর নির্ভর করে সেটা অনেকক্ষণ দেখা যেতে পারে । কিন্তু যখন আপনি সেটা গিয়ে দেখলেন কোন গাছের উপর পতিত হয়ে অনেকক্ষণ জ্বলছে বা আপনার সামনে দিয়ে খুব নিচে দিয়ে গিয়ে ঘুরে ঘুরে বেড়াতে লাগলো ।  এটা কে কি ঊল্কা বলা যাবে , বা ঊল্কা তত্ত্ব দিয়ে ব্যাখ্যা করা যাবে ? । বিজ্ঞানীদের এসব ক্ষেত্রে যুক্তি একটাই প্রমান দেখান , যখন ঘটে ডেকে নিয়ে দেখান, দেখাতে পারবেননা তো, এটাই আমার কাছে সবথেকে বোরিং একটা যুক্তি মনে হয় , একতরফা যুক্তি মনে হয় , গৎবাধা উত্তর মনে হয় । কারণ যখন ঘটবে সেটা দেখানোর জন্য মানুষ যখন ডেকে নিয়ে যাবে তখন তো এটা স্বাভাবিক ভাবে আর সর্বসাধারণের দেখার জন্য বসে থাকবে না ।ভৌতিক ঘটনা হঠাৎ করে আপনার মানসিক দুর্বলতা ,হ্যালুসিনেশন, নির্জন পরিবেশ বা বিভিন্ন কারনে হতে পারে । সর্বসাধারণের সামনে ঘটেছে এমন টা কখনও হয়না । যেই দেখেছে বলতে গেলে যখন একা ছিলো সেই মানুষটি ।এই কারনে ভুত প্রেতের ব্যাপারটা কখনো দেখা সম্ভব হয়না , প্রমান করবার মত প্রমান ও পাওয়া যায়না । এই ধরুন ভারতীয় যুক্তিবাদী বিজ্ঞান সঙ্ঘের প্রতিষ্ঠাতা  প্রবির ঘোষ ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১২ তে একটি টেলিভিশন চ্যানেল এ হাজির হন নাগেরবাজার এর উড়ালপূলের ভুত দেখার জন্য । সেখানে কোন ভুত নেই বলার জন্য তিনি লাইভ এ যান, অনেক মানুষ ব্যাপারটা দেখে, অবশেষে আড়াই ঘণ্টা অপেক্ষা করার পর দেখা যায় ভুত বলে কিছু নেই । প্রমান হয়ে যায় সেখানে ভুত বলে কিছু নেই ।কিন্তু ব্যাপারটা কি হল, আমার মনে হয় এরকম পরীক্ষাটা যুক্তিযুক্ত নয় , আপনি লাইভ দেখলে কিছু পাওয়া যাবে বলে মনে হয়না । আছে কি নেই বুঝতে হলে একেবারে একা বিনা ঘোষনাতে গিয়ে দেখলে হয় ব্যাপারটা ।

         আমাদের দেশে এবিসি রেডিও তে জনপ্রিয় আরজে কিবরিয়া ভাইয়ের উপস্থাপনায় ডর নামে একটা অনুষ্ঠানে ডর লাইভ এ যেতেন, কিন্তু ভৌতিক যায়গা

গুলোতে দলবেধে গিয়ে , আধুনিক ক্যামেরা দিয়ে হইহুল্লোড় করে কি ভুত দেখা

(৭৫)

সম্ভব !।  ভূত দেখার একটা আইডিয়া  হতে পারে তা হল কারো গায়ে যদি একটা সিসি কামেরা বসিয়ে তাকে হন্টেড প্লেস এ পাঠানো যায় আর তার আর কয়েক মাইল এর ভিতর কেউ না থাকে তাহলে হয়তো কিছুটা প্রমান পাওয়া যেতে পারে, ,আছে কি এরকম সাহসী কেউ ?  এরকম সাহস কি আছে কারো, মনে হয় নেই ।আবার বিভিন্ন পীর ফকির ঋষি দরবেশ দের অলৌকিকত্ব কে অনেকে প্রতারনা বা হাত সাফাই বলে থাকেন ।আমার কথা হলো ঢালাও ভাবে প্রতারনা বা হাত সাফাই বলাটা যুক্তির কথা নয়, কারনটা হল আপনি যেটা জানেননা এবং অসম্ভব বলে মনে করেন সেটা তার কাছে এক অজানা বিজ্ঞানের জন্য সম্ভব বলে মনে হচ্ছে । অলৌকিক বলে কিছু নেই ,আর আপনি যেটা কেই অলৌকিক বলে মনে করেন সেটা হলো আমাদের অজানা বিজ্ঞান, সব অলৌকিক ঘটনার পিছনে থাকে একটা বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা ।অলৌকিক ঘটনা হল অজানা এক বিজ্ঞানের ঘটনা ।যে বিজ্ঞান আমরা জানিনা , যে ক্ষমতা আমাদের হাতে নেই সেটাই আমাদের চোখে অলৌকিক হিসেবে ধরা দেয় । মুলত অলৌকিক যত কিছু ঘটুক না কেন তা অবশ্যই একটা অজানা বিজ্ঞানের খেলা । প্রত্যেক অলৌকিক বা ভৌতিক ঘটনার পিছনে দায়ী হলো আমাদের অজানা এক অলৌকিক বিজ্ঞানের জগত এর  খেলা । অবশ্য যদি আপনি কখনো অলৌকিক কিছু দেখতে পায় । এই আগুন ধরবার পিছনেও সেইরকম অজানা কোন বিজ্ঞান কাজ করছে । পৃথিবীতে আমরা আসা আর যাওয়ার খেলাতে এক অভিনেতা মাত্র । কিন্তু কখনো অদেখা কিছু দেখেছেন , আসলে হাতে কলমে ধরিয়ে বা চোখে আঙ্গুল দিয়ে অদ্ভুত  কিছু দেখানো যায়না । আপনার খোলা চোখ কান ই সাহায্য করতে পারে অনেক অদ্ভুত কিছু দেখতে। হাতে নাতে কিছু দেখানো যাবেনা বা দেখাতে পারবনা যদিও তবে কিছু ধারনা আপনাদের দিতে পারব পাঠক  ইউটিউব আছে বলে কিছুটা অদ্ভুতের ছোয়া আপনাদের দিতে পারি ।

         ইউটিউব এ যান আর লিখুন illusion এই শব্দটি আর এই illusion শব্দটিকে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে লিখুন বিভিন্ন ভাবে যেমন illusion এর আগে লাগিয়ে দিন mind blowing , তারপর illusion এর আগে লাগিয়ে দিন optical , এরকম ভাবে illusion এর আগে মন মত কয়েকটা শব্দ লাগিয়ে নিলে রহস্যময় অনেক

(৭৬)

পরবর্তী পৃষ্ঠা দেখুন

0Shares

Facebook Comments

error: Content is protected !!