কালোজাদু-পৃষ্ঠা-৮১+৮২

0Shares

        **নির্জনে সাদা কাপড়ে লোক দেখা  বা মৃত মানুষ কে কোথাও দেখা — আচ্ছা এটা কেন হয় বলতে পারবেন । আপনি কখনো দেখেছেন ?। বলা হয় কবর স্থানে “ঘুল” নামক এক প্রকার জ্বীন থাকে তারাই এরকম রুপ ধরে, বা হতে পারে কারিন জ্বীনের মৃত বাক্তির রুপ ধারন। হতেই পারে, আপনি কি কখন দেখেছেন । গভীর রাতে কবরস্থানে যাবার মত সাহস কি আপনার আছে , আমার তো নেইই । আপনাদের এত সাহস না থাকা ভালো । আমরা তো সবকিছু চোখ বুজে নেই বলি, কিন্তু কি জানি কেউ কি এসব নিয়ে পরীক্ষা করে বলে ব্যাপারটা। মুলত এই সব ঘটনা গুলো নির্দিষ্ট সময় বা ফ্রেম এ বেধে পর্যবেক্ষন সম্ভব নয় বলেই এগুলো মানুষের পরীক্ষাতে নেই হয়ে গেছে। কিন্তু প্রমাণিত নেই হবার পরেও মানুষ এগুলো বিশ্বাস করে। কি আছে বা নেই ব্যাপারটা অনেকটা রহস্যময়। আসলে সময় বলে কি কিছু আছে , সময় তো আমাদের বানান একটা সিসটেম বা কাল পরিবর্তনের একক মাত্র, ঘড়ি তো সুর্য্যের আলো আর পৃথিবীর আবর্তনের হিসেব করে আমরা সময় নামক একটা ব্যাপারের জন্ম দিয়েছি। ধরুন সুর্য্য পৃথিবির একপাশে আলো দেই,একপাশে পৃথিবীর ঘুর্ননের কারনে অন্ধকার, আরেকপাশে খরা, একই সময়ে একপাশে বাপক বৃষ্টি বা ব্যাপক শীতকাল এরকম চলছে। আসলে কি জানেন গুরু বা শক্তিমানের শ্রেষ্ঠত কিসে জানেন, শক্তিমানের শ্রেষ্ঠত্ব কিসে বা প্রকৃতির রহস্যময়তা কিসে এটা বোঝবার সূবিধার্থে একটা কয়েক লাইনের গল্প বলি। একবার একজন যাদুকর টেলিভিশন এ একটা যাদু দেখাচ্ছেন, যাদুটা এমন যে তার হাতে একটা ডিম আছে, দর্শক সবাই দেখল একটা ডিম যাদুকরের হাতে, ভাল করে দেখা হল তার হাতে আর কিছু নেই। এবার যাদু মন্ত্র বিড়বিড় করার মত কিছু পড়ে হাত ঘোরালেন সবাই দেখলেন ডিমটা হাতে ভেঙে একটা মুরগীর বাচ্চা বেরিয়ে এল। সবাই ভাবলো এটাই যাদু, কিন্তু কয়েক মুহূর্ত পরেই দেখা গেল হাতের আরেক ঘুর্নিতে মুরগীর বাচ্চাটা হাতে নিতেই সেটা ডিম হয়ে গেলো। শ্রেষ্ঠত্বের বা অব্যাখ্যায়িত আরো একটা উদাহরন দিই। ধরুন একটা লোক ০৫ তলা থেকে কোন লাইফ সাপোর্ট ছাড়া পড়লো, কিন্তু মরলোনা । এ রকম ঘটনা কিন্তু ঘটে বাস্তবেই ।

(৮১)

         কোন এক ক্রিকেট দলের নাম , এই  দলের দরকার ০৬ বলে ০৩ রান , হাতে ০৪ উইকেট। তাহলে দল এর না জেতার কোন কারণ নেই।কিন্তু দেখা গেলো প্রতিপক্ষ দলের একজন বোলার সবগুলো উইকেট তুলে নিলো মাত্র ০১ রান দিয়ে । ফলশ্রুতিতে দল হেরে গেলো অবিশ্বাস্যভাবে ।আবার ধরুন দুটো দলের ফুটবল খেলা হচ্ছে । একটা দল ৮০ মিনিট পর্য্যন্ত দুই গোল দিয়ে এগিয়ে আছে । ফলশ্রুতিতে ২য় দল গোলশূন্য থাকায় তাদের কোনরকমই জেতার সম্ভাবনা নেই । কিন্তু শেষ ১০ মিনিটে গোলশূন্য দলটি ০৩ টি গোল দিয়ে জিতে গেল । অবিশ্বাস্য আর অসম্ভব শোনা গেলেও ক্রিকেট আর ফুটবলে এরকম ম্যাচ এর নজির বেশ কিছু আছে । এ রকম উদাহরণটা দিলাম ক্ষমতার উপর ক্ষমতার (ট্রাম্প ওভার ট্রাম্প) কিছুটা বোঝানোর জন্য বা অতিপ্রাকৃত বা অলৌকিক মানে কি সেটা বোঝানোর জন্য । ধরুন আমরা জানি আমাদের মানবদেহের কোন অঙ্গের কি কাজ , অপারেশন বা শল্য চিকিৎসা আর ঔষধ সবই আমাদের কাছে আছে, তারপরও  কি একটা রহস্য  যেন থেকে যায় মনে হয় তাইনা । মানব সন্তান জন্মের প্রক্রিয়া আমরা জানি , কিন্তু , তারপরেও একটা রহস্য কিন্তু থেকেই যায়, আমাদের চোখের আড়ালে অদৃশ্য একটা শক্তির দ্বারা ১০ মাস সবকিছু নিয়ন্ত্রিত হয়, আমরা সবাই এত সাবধানে পথ চলেও দূর্ঘটনায় পড়ি, ব্যাপারটা হলো সব খেলোয়াড় বল দেখে খেলে কিন্তু তারপরেও আউট হতে হয় কোন না কোন বলে ।আমরা এ রকম একটা অদৃশ্য শক্তির হাতে নিয়ন্ত্রিত যে নিজের জ্ঞানে আর নিজের হাতেই কখন নিজের অপছন্দের কাজ করে বসবো তার ঠিক নেই। আমরা সবাই ঝেড়ে  দৌড়াতে পারি , কিন্তু উসাইন বোল্ট সবাই হতে পারিনা।কবিতা আর গল্পের লেখক লক্ষ লক্ষ হলেও নজরুল, রবি ঠাকুর আর কেউ হলোনা ।মার্শাল আর্ট অনেকে দেখালেও আর কেউ ব্রুস লি হলোনা। ফুটবল সবাই কম বেশি খেলি, সব দেশেই কঠোর প্রশিক্ষনের একটা জাতীয় দল আছে , কিন্তু সবাই পেলে,ম্যারাডোনা, মেসি রোনালদো নেইমার হয়না । আমাদের জব্দ ভূমিকম্প প্রতিরোধী রড আছে, দক্ষ ইন্জিনিয়ার এর প্ল্যান এ বাড়ি আছে , কিন্তু তবুও ভুমিকম্প ও এর ক্ষয়ক্ষতি ঠেকাতে পারিনা ।

(৮২)

পরবর্তী পৃষ্ঠা দেখুন

0Shares

Facebook Comments

error: Content is protected !!