কালোজাদু-পৃষ্ঠা-৩১৩+৩১৪

0Shares

এরকম নজির পুলিশ কেস স্টাডি তে বহু পাবেন ।পৃথিবীর জন্ম ৫০০ কোটি বছর হতে হবে বা মানুষ ১০ লাখ বছর ধরে তৈরি হতেই হবে এটা কেন বিশ্বাস করবো ? এমন কথাতে আমার বিশ্বাস নেই ।এটা যে বিজ্ঞানীরা বলেছেন সবই আনুমানিক ।প্রকৃত ব্যাপারটা হলো আমরা যা জানি , বইয়ে যা পড়ি , বিজ্ঞানীরা যেটা মিলিয়ন ডলার খরচ করে গবেষনা করে সিদ্ধান্তে এসে আমাদের পড়াচ্ছেন সেটা অনুমান নির্ভর । স্রষ্ঠার ভাবনার সাথে এবং সৃষ্টিকৌশলের সাথে বিজ্ঞানীদের পৃথিবী ও মানুষের সৃষ্টি ও উৎপত্তি সম্বন্ধে ভাবনা না মেলারই সম্ভাবনা ১০০% । আরেকটা কথা যেটা অনেক বিজ্ঞানী অনুমান করেন সেটা হলো যে আমরা সব মানুষ যে একই মানুষ থেকে এবং সেই মানুষ বেহেশত বলি আর অন্য গ্রহ থেকে এসেছে বলি এই তত্ত্ব সত্য ।কারন যা রটে তা কিছুটা বটে এবং হাজার হাজার বছর মানুষ একজন মানব এবং মানবীর থেকে সকল মানুষ এবং তারা পৃথিবীতে এসেছিল অন্য যায়গা থেকে এটা দেখবেন পৃথিবীর প্রাচীন সকল উপজাতীয় নৃগোষ্ঠী থেকে শুরু করে সভ্য সকল জাতির প্রাচীন গ্রন্থ গুলোতে প্রচলিত আছে । এটা কখনো মিথ্যা হবে এটা মানুষ ভাবেনা । কিন্তু দেখা গেলো ১০০০০ বছর পরের মানুষ এসে ব্যাপারটা নিয়ে ভাবলো এই যে এটা তো শুনে আসছি , আসলে কি এটা সত্য , কিভাবে এটা সত্য এরকম ভাবতে গিয়ে পক্ষে বিপক্ষে অনেক তত্ত্ব এসে যায় । দেখা যাচ্ছে পৃথিবীতে এখন উন্নত যন্ত্রপাতি আছে , কিন্তু আগে নভোযান ছিলোনা , তাহলে মানুষ এলো কি করে , বলি ভেবে দেখুন যিনি এরকম মানুষ সৃষ্টি করলেন তার কাছে কি নভোযান এমন কঠিন কিছু , মানুষ বেহেস্তে থাকুক আর অন্য গ্রহ থেকেই আসুক না কেন তাকে তো কিছু জ্ঞান দিয়ে পাঠানো হয়েছে ।আচ্ছা এখন একটা প্রশ্ন করি , উত্তর দিন তো দেখি । .পৃথিবীতে আমরা যে এত আশা করে এত দালান কোঠা ,টাকা বা সম্পদ গড়ছি সেই পৃথিবীটা কি কোন নিশ্চয়তার ভিতর দাড়িয়ে আছে ? হয়তো বলা যাবে পৃথিবী আরো ৫০০ কোটি বছর টিকে থাকবে , কিন্তু যে কোন একটা মহাজাগতিক বিপদ হতে কতক্ষন

(৩১৩)

ব্যাপারটা আপনার আমার শরীরের মত , আপনার বা আমার শরীর মানে মানব শরীর ১০০ বছর বেঁচে থাকবার উপযোগী করে তৈরি করা । কিন্তু রোগব্যাধি , ধুমপান বা দুর্ঘটনাতে পড়ে মানুষ ২০ বছর বয়সেও মারা যেতে পারে ।এখন বেঁচে আছেন , ০১ ঘণ্টা পর যে মরবেননা , এটা বলা যাবেনা । আমাদের পৃথিবী মহাকাশ মহাবিশ্ব সব কিছুই এরকম , আমরা পৃথিবীতে যা কিছু করছি , এই ধরুন দালান কোঠা করছি , পৃথিবীতে বিখ্যাত হবো , সেলিব্রিটি হবো , কত স্বপ্ন আমরা দেখি , আচ্ছা ভাবুন তো পৃথিবী বিজ্ঞানীরা অনুমান করে বলেছেন পৃথিবী আরো ৫০০ কোটি বছর থাকবে ।এটা তো গতানুগতিক হিসাব মাত্র , কিন্তু মহাজাগতিক আকস্মিক দুর্ঘটনাতে যখন তখন ধ্বংস ও তো হওয়া কোন বাপারনা ।পৃথিবী আছে তাই তো যে বিখ্যাত হয়ে মরে , তাকে মানুষ কিছু দিন মনে রাখে মরার পরেও । কিন্তু যে মানুষ টা বিখ্যাত হয়না সারাজীবন কর্ম করে , সংসার করে , রোজ সকালে উঠে কাজে বেরিয়ে পরে , সারাদিন কর্ম করে রাতে বাসায় ফেরে , আবার সকালে কাজে বেরিয়ে যায় , আবার রাতে বাসায় ফেরে , বছরে দু একটা ঈদ –পূজা-পার্বণ যখন আসে তখন একটু আনন্দ করে , অনেকের ভাগ্যে তাও জোটেনা , তারপর কালে কালে মানুষ একদিন যৌবন চলে যায় , আসে প্রৌঢ় কাল , তারপর আসে বার্ধক্য ।এভাবে একদিন আসে মৃত্যু নামক সপ্নের প্রিয় পৃথিবী ছেড়ে চলে যাবার ভিসা । সবার চলে যেতে হয় একদিন এভাবে , সবার জীবনের গল্প এই একই রকম । আমি এই পৃথিবীতে এসেছি , দু বেলা দুমুঠো ভাত আর জীবনের কিছু না কিছু সপ্ন বা লক্ষ পুরন করতে করতেই আমাদের মৃত্যু নামক যাবার সময় হয়ে যায় ।পৃথিবীতে লাখে ০১ জন লোকের জীবন হয়তো এর বাতিক্রম হয় বা বিখ্যাত হয় ।আবার এই পৃথিবীতে তো প্রতি বছর সেলিব্রিটি তৈরি হচ্ছে , মানুষ বিখ্যাত হচ্ছে , লেখক , খেলোয়াড় অভিনেতা হচ্ছে , কিন্তু সব সেলিব্রিটি কি অমর ?সব সেলিব্রিটির কর্ম টাকে সেই যুগে লাইম লাইট এ রাখে বটে , কিন্তু কজন সেলিব্রিটি কালোত্তীর্ণ হয় ? পৃথিবীতে আজ পর্যন্ত অন্তত ১০০০ কোটি মানুষ এসেছে

(৩১৪)

পরবর্তী পৃষ্ঠা দেখুন

0Shares

Facebook Comments

error: Content is protected !!