কালোজাদু-পৃষ্ঠা-১৯৭+১৯৮ | MEHBUB.NET

কালোজাদু-পৃষ্ঠা-১৯৭+১৯৮

আবার এই যে আমাদের বাংলাদেশে যে যমুনা নদী দেখি এটা কিন্তু সৃষ্টি এমনিতে বা আদিতে হয়নি। ১৭৮২ থেকে ১৭৮৭ সালের ভয়াবহ ভুমিকম্প ও বন্যাতে জামালপুর জেলার দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার বাহাদুরাবাদ নামক যায়গাতে ব্রহ্মপুত্র নদ তার গতিপথ পরিবর্তন করে দক্ষিনে যাত্রা শুরু করে বর্তমান আরিচাতে এসে মিললে সেটাই হয়ে যায় বর্তমানের যমুনা ।তাহলে ভাবুন এবার ব্যাপারটা। আবার আসি প্রাচীন জনপদ প্রসঙ্গে  গ্রীক মনিষী মেগাস্থিনিস (৩৫০-২৯০ খ্রিষ্টপূর্ব) এর ইন্ডিকা নামক গ্রন্থেও এর উল্লেখ পাওয়া যায়। গঙ্গারিডির সেনাবাহিনীতে দুই লাখ সৈন্য, ৮০ হাজার অশ্বারোহী সৈন্য, ৮০০০ যুদ্ধরথ বা যান এবং ৬০০০ হাতি ছিল । এর ফলে সম্রাট আলেকজান্ডার ও আক্রমন করতে এসে ফিরে যান বিনা আক্রমণে, বিশাল আয়তনের গঙ্গা নদী এবং বিশাল শক্তিশালী সৈন্যবাহিনী এই দুটোই ছিল ওনার ভয়ের কারণ। আর ময়নামতি বিহার(কুমিল্লাতে অবস্থিত ১২০০ বছরের পুরাতন) , মহাস্থানগড়(বগুড়াতে , ২৫০০ বছরের পুরাতন) আর উয়ারি-বটেশ্বর(আজ থেকে ২৪৫০ বছরের পুরনো নগর মোহাম্মাদ হানিফ পাঠান(১৯০১-১৯৮৯) ও তার ছেলে হাবিবুল্লাহ পাঠান এর প্রচেষ্টাতে আবিষ্কৃত) –নরসিংদীর বেলাব উপজেলাতে অবস্থিত । এগুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা তো করলামই না ।মানুষের বসবাসের যায়গা সীমাবদ্ধ, কোথাও কোন নগর গড়ে ওঠে প্রয়োজনে, আবার সেই নগর বাণিজ্যিক বা দুর্যোগের কারনে গুরুত্ত হারালে মানুষ অন্যত্র বসতি গড়ে । ফলে পুরাতন স্থাপনা গুরুত্ত হারায়, আবার সেটা সুযোগ পেলে কেউ দখল করে পুরাতন কে ভেঙ্গে নতুন কে গড়ে । পুরাকৃতির গুরুত্ব ও নদীর গুরুত্বের থেকে মানুষের কাছে মানুষের কাছে নিজের বসতবাড়ির যায়গা ও নদী দখল করে নানান স্থাপনা তৈরির মূল্যটা বেশি। ধরুন জঙ্গি সংগঠন আই এস এর হামলাতে ইরাক ও সিরিয়ার অনেক প্রত্নততাত্তিক নিদর্শন ও স্থান ধবংশ হয়ে যায় । সিরিয়ার পালমিরার ৩০০০ বছরেরও বেশি রোমান প্রত্নতাত্বিক নিদর্শন ধ্বংশ করে আইএস এবং ইরাকের নিনেভাতেও আসিরীয় সভ্যতার ৩০০০ বছরের পুরাতন স্থাপনা ধ্বংশ করে ।

(১৯৭)

         এভাবে মিথ এ থাকা অস্তিত্ব ও অস্তিত্বহীন হয়ে পড়ে। আবার ধরুন যদি বিগত ৫০০০ বছরের সকল পুরাতন স্থাপনা টিকে থাকতো তবে আমাদের বর্তমান যুগের অনেক যায়গা অযথা দখল করে থাকতো পুরাতত্ত্ব, তখন নতুন স্থাপনার যায়গা অভাব ও হতে পারতো ।

তো আগামী ৫০০ বা ৫০০০ বছরে বাংলাদেশ পানির নিচে বিলীন হয়ে যেতে পারে ,সৌদি আরবের মত মরুভুমির দেশ হয়ে যেতে পারে, পৃথিবী ধ্বংশ হয়ে যেতে পারে, ১৯৭১ এর মত ১০ টা যুদ্ধ হয়ে যেতে পারে, ÔÔ ঠিক এই ভাবে পিছনের ইতিহাস হারিয়ে যায়, কালে কালে গুরুত্ত্বহীন হয়ে পড়ে, কালে কালে মহাকালের গর্ভে বিলীন হয়ে যায়, ÕÕভৌগলিক ও জলবায়ুর  পরিবর্তনে মানচিত্রের পরিবর্তন হয়, আর যুদ্ধ ও রাজনীতি করে ইতিহাসের পরিবর্তন”।ফলশ্রুতিতে ইতিহাস এককালের প্রমত্তা পদ্মার যায়গায় ধু ধু বালুচর নিয়ে  হাহাকার করে এইখানে এক নদী ছিল জানলোনা তো কেউ, এভাবে একসময় সুদুর অতীতের মহাগুরুত্বপূর্ণ আর বর্তমানের গুরুত্ত্বতহীন ইতিহাস অবহেলিত হতে হতে হয়ে যায় পুরাণ গ্রন্থ, তাতে থাকা দেবতাদের অস্ত্র, অলৌকিক কাজ গুলো অবুঝ মানুষের কাছে হয়ে যায় গাজাখুরি গল্প, বলা হয় মানবরচিত গল্প না ভাই সত্যিই ইরাম, ট্রয়,আটলান্তিস, প্রাচীন পম্পেই নগরী (ইতালিতে অবস্থিত ছিল, ভিসুভিয়াসের অগ্লুৎপাত, গ্ল্যাডিয়েটর ফাইট নামক অমানবিক নিষ্ঠুর খেলার আয়োজন ও সমকামিতার অপরাধে ৭৯ খ্রিস্টাব্দের ২৪শে আগষ্ট ধ্বংশ হয়, ১৭৪৮ সালে স্প্যানিস মিলিটারী ইঞ্জিনিয়ার রক জোয়াকুইন ডি আলকুবিরে এই নগরী মাটির নিচে প্রোথিত অবস্থার থেকে আবিষ্কার করেন, বিস্ময়কর ব্যাপার বলুন বা পাপাচারে লিপ্ত হবার কারনে স্রষ্ঠার রাখা পরবর্তীতে সীমালঙ্ঘনকারীদের জন্য নিদর্শন যাই বলুন না কেন, এখানে সেই দিনে ওই নগরীতে যে যে অবস্থাতে মারা গেছিলো তাদের কে সেই অবস্থাতে জমাট ভাস্কর্যের রুপে পাওয়া গেছে ), সাদুম নগরী(বর্তমান ইসরাইল রাষ্ট্রে অবস্থিত, হযরত লুত আঃ এর সময়ে(প্রায় ৪০০০ বছর আগে হযরত ইবরাহীম আঃ এর সময়ে, হযরত লুত আঃ ছিলেন হযরত ইবরাহীম আঃ এর ভাতিজা) সমকামিতার জন্য ধ্বংশ হয়েছিল

(১৯৮)

পরবর্তী পৃষ্ঠা দেখুন

error: Content is protected !!